জাদু দিয়ে জাদু কাটানোর বিধান

জাদু কাটানোর জন্য যে জাদু ব্যবহার করা হয় তাকে আরবীতে “নাশরাহ” (প্রকাশ করা, উন্মুক্ত করা) বলে। জাবির রা. বলেন:
 
سُئِلَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم عَنْ النُّشْرَةِ فَقَالَ هُوَ مِنْ عَمَلِ الشَّيْطَانِ
 
“রাসূলুল্লাহ সা.-কে ‘নাশরাহ’ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন: এটি শয়তানের কর্ম।” হাদীসটি সহীহ। -আবূ দাঊদ (কিতাবুত তিব্ব, বাবুন ফিন নাশরাহ) ৪/৫ (ভারতীয় ২/৫৪০); মুসনাদ আহমদ ৩/২৯৪।
 
এজন্য মুমিনের দায়িত্ব বিপদে-কষ্টে ধৈর্যধারণ করা এবং ঈমানের সংরক্ষণ-সহ সুস্থতা অর্জনের চেষ্টা করা। জাদুকর বা জিন-সাধকদের মাধ্যমে চিকিৎসার চেষ্টা করে মুমিন ঈমান হারানোর পাশাপাশি অর্থ হারান এবং অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কোনো স্থায়ী সুস্থতা লাভ করতে পারেন না।
 
রাহে বেলায়াত, জানুয়ারি ২০২১ ঈসায়ী, পৃ. ৬০৫

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *